লিভার কি-লিভার সুস্থ রাখার উপায়

 লিভার আমাদের দেহের একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ সুস্থভাবে বাঁচতে ও স্বাভাবিক কার্যক্রম শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ গুলোর অবদান রাখার তার মধ্যে লিভার গুরুত্বপূর্ণ। অস্বাস্থ্যকর জীবন যাপনের জন্য লিভারের ওপর খারাপ প্রভাব ফেলে ওজন বৃদ্ধির দীর্ঘ সময় ক্লান্ত অনুভব করা হজমের সমস্যা এলার্জি ইত্যাদি এসব ক্লান্তি অশিক্ষা দিতে পারে লিভারের কারণে তাই দেহ ও লিভার সুস্থ রাখার জন্য চিনে নিন এমন কিছু উপায় যাতে আমাদের লিভার ভালো থাকে কারণ লিভার আমাদের দেহের অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ বলে। শরীরের উৎপন্ন বিষাক্ত কিছু পদার্থকে পরিবর্তন ঘটিয়ে কম ক্ষতিকারক পদার্থ পরিণত করে বিভিন্ন উপায়ে শরীরের বাইরে নিরীকরণের কাজ করে লিভার। লিভার কখনো বিশুদ্ধ পদার্থকে নিজের মধ্যে জমা করে রাখেনা।


সূচিপত্রঃলিভার সুস্থ রাখার উপায়-লিভার ভালো রাখার নিয়ম

লিভার কি -লিভার সুস্থ রাখার উপায়

লিভার আমাদের দেহের খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ। যার কাজ হল দেহের প্রবেশ করা টক্সিন বা বিষ বর্জ্যে রূপান্তরিত করা। যে বর্জ্য পরে প্রস্রাব পায়খানার সঙ্গে বের হয়ে আসে আর এটা খুব জরুরী একটি কাজ কেননা খাদ্যের সঙ্গে আমাদের দেহের প্রচুর পরিমাণ টক্সিন প্রবেশ করে। তবে বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এ লিভারের কাউকে ক্ষমতা কমে আসতে থাকে অথবা কোন ভাইরাস বা রোগের কারণে লিভারের কার্যক্ষমতা কমে আসে।
 হলে দেহ থেকে যথাযথ ভাবে টক্সিন বের করে দেওয়ার অক্ষম হয়ে পড়ে সেটি। তখন এসব ক্ষতিকারক টক্সিন লিভারে চর্বি হিসাবে পেটে জমা হয়। লিভারে অতিরিক্ত চর্বি জমা হলে ফ্যাটি লিভার রোগ সৃষ্টি হতে পারে। লিভার প্রাকৃতিকভাবেই একটি চর্বি বহুল অঙ্গ তাই লিভারে সব সময় কিছু না কিছু চর্বি থাকা উচিত। যখন আপনার লিভার টক্সিন নিঃসরণে ভালোমতো কাজ করতে পারবে না তখন আপনি যতই ওজন কমানোর জন্য চেষ্টা করেন না কেন বা কম ক্যালরিযুক্ত খাবার খান না কেন তাতে আপনার কোন কাজ হবে না।

লিভার কি ভাবে কাজ করে-লিভার সুস্থ রাখার উপায়

আপনার দেহে এমন একটা ফ্যাক্টর রয়েছে যার ওজন প্রায় ১৫শ কিলোগ্রাম যা দিনে ২৪ ঘন্টা চলাচল করে এটা হল লিভার। লিভার আপনার দেহের সবচেয়ে ভারী একটি অঙ্গ এবং গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ লিভার। এই অবকাঠামোটি আপনার দেহের একটি স্টোর উৎপাদন কেন্দ্র একটি প্রক্রিয়াজাতকরণ কেন্দ্র হিসেবে কাজ করে লিভার। লিভার আপনার দেহের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ যার ২৫০  টির বেশি ভিন্ন ভিন্ন ফাংশন রয়েছে। তার মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ফাংশন হচ্ছে পিত্তি উৎপাদন।

 তবে এটি বিপাকীয় প্রক্রিয়ায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এর ফাংশন গুলি এত গুরুত্বপূর্ণ সাপটাক জড়িত যে লিভারকে ছাড়া আমাদের দেহ কোন কাজ করে না লিভারের প্রধান কাজ হল দেহের মধ্যে বিলাড ফিল্টার করা যেগুলো সাধারণত দুইটি উৎস থেকে চলাচল করে হেপাটিক হার্ট থেকে রক্ত চলাচল করে যা লিভার থেকে নিয়ে আসে লিভার আমাদের দেহের আরো নানান গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে লিভারের আরো গুরুত্বপূর্ণ কাজ হল আমাদের দেহের বিভিন্ন বজ্র পদার্থ কে বের করে দেওয়ার প্রধান কাজ করে লিভার। এছাড়া লিভার পরিষ্কার করতে সাহায্য করে। লিভার আমাদের দেহের গ্লুকোজের পরিমাণ বজায় রাখতে সাহায্য করে তাছাড়া লিভার আমাদের পেটের অতিরিক্ত এসিড নিয়ন্ত্রণ করে।

লিভার কি কি কাজ করে-লিভার সুস্থ রাখার উপায়

লিভারের কাজ হল আমাদের দেহের গৃহীত যে খাবার গুলো রয়েছে সে খাবারগুলো প্রসেস করা এবং প্রসেস করে প্রয়োজনীয় অংশগুলো দেহের এবং বিশেষ করে লিভারে সঞ্চিত রাখা গুদাম ঘরের মতো এবং বাকি প্রয়োজনীয় অংশগুলো দেহের দূরবর্তী স্থানে নিয়ে গিয়ে দেহে চালিকাশক্তি ক্ষয় পূরণ বৃদ্ধির কাজে লাগায় দ্বিতীয়তঃ যেটি করে আমাদের দেহের গৃহীত যে ওষুধগুলো রয়েছে ওষুধগুলো যে প্রসেস করে ক্ষতস্থানে নিয়ে যাওয়া এবং ক্ষতস্থান ছাড়া তৃতীয় লিভারের কাজ হল সেটি হলো আমাদের দেহের প্রবিস্কৃত  টক্সিন বা বিষাক্ত পদার্থ এছাড়া খাবারের সাথে আগত যেকোনো টক্সিন বা বিষাক্ত পদার্থ  নিড়বিশ পরনের কাজ লিভার করে থাকে এছাড়া চতুর্থ যে কাজটি করে তাহলে আমাদের দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির কাজ লিভার করে থাকে

লিভার সুরক্ষিত রাখার উপায়-লিভার সুস্থ রাখার উপায়

লিভার আমাদের খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ তাই লিভারের দিকে আমাদের খেয়াল রাখতে হবে লিভার আমাদের দেহের নানান কাজ করে থাকে হজম থেকে শুরু করে শরীরের রক্ত পরিশোধন পর্যন্ত লিভার কাজ করেছে তাই নিজেকে সুস্থ রাখতে হলে লিভার কে সুস্থ রাখতে হবে আজ আমরা জানবো লিভার সুস্থ বা ভালো রাখার কিছু উপায়
1. কফিঃ কফি আমাদের লিভারের জন্য অনেক উপকারী হিসেবে কাজ করে কফি দীর্ঘস্থায়ী লিভারের রোগ সিরোসিস এমনকি লিভার ক্যান্সার বিশেষ করে চিনি ছাড়া কফি খেলে এটি চর্বি এবং কলজেন উৎপাদনে বাধা দিতে লিভার কে সাহায্য করে
2. বেরি জাতীয় ফলঃ বিভিন্ন বেরি জাতীয় ফল আমাদের দেহে এতটা প্রচলিত না তারপরও যখন এসব ফলের দেখা মেলে বাজারে এর মধ্যে রয়েছে স্ট্রবেরি বুলুবেরি এসব ফলে প্রচুর পরিমাণ এন্টিঅক্সিডেন্ট ভিটামিন সি ও পানি রয়েছে যার কারণে এসব ফল লিভারের জন্য অনেক উপকারী ভূমিকা রাখে।

3. চর্বিযুক্ত মাছঃ মাছের ফ্যাট বা চর্বির লিভারের জন্য অনেক উপকারী এতে ওমেগা থ্রি ফাটিয়েছি থাকে যা লিভারের জন্য অনেক ভালো
4. পানিঃ আমাদের কাছে পানি সাধারণ মনে হলেও আমাদের শরীরের জন্য অনেক উপকার করে বিশেষ করে লিভারের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ পানে পানে আমাদের খাবারকে হজম করতে সাহায্য করে এবং লিভার কে তার কাজ করতে সাহায্য করে
5. অলিভ ওয়েলঃ যদিও এটা আমাদের দেশে অত প্রচলিত নয় তবে এটি লিভারের জন্য অনেক উপকারী একটি জিনিস এটি খেলে আমাদের লিভারের ফ্যাটি অ্যাসিড থেকে শুরু করে লিভারের শরীরের অনেক উপকার করে।

কি খেলে লিভার পরিষ্কার হয়-লিভার সুস্থ রাখার উপায়

 লিভার আমাদের একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ তাই লিভারের দিকে খেয়াল রাখতে হবে লিভার পরিষ্কারের জন্য আমাদের কিছু খাবার খেতে হবে সে খাওয়ার গুলো নিয়ে আলোচনা করা হলো
1. লেবু পানিঃ প্রতিদিন লেবু পানি পানের অভ্যাস করুন এতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি থাকে যা লিভারের দূষণমুক্ত করতে সাহায্য করে প্রতিদিন সকালে বিকালে এক কাপ করে লেবু পানি পান করুন এটা আপনার লিভারের ফাংশন ঠিক করতে সাহায্য করে এবং লিভার থেকে দূষিত ভদ্র পদার্থ দূর করতে লেবু পানি অনেক ভূমিকা পালন করে তাই আমাদের লিভার পরিষ্কার করার জন্য প্রতিদিন অন্তত পান করা প্রয়োজন
2. রসুন বা আদাঃ আমাদের প্রতিদিনের রান্নার কাজে ব্যবহার করি রসুন বিভিন্ন অসুখে ওষুধ হিসেবে কাজ করে আছে ব্যাকটেরিয়ার গুণ থাকে ছেলে না যা আমাদের লিভারের জন্য অনেক উপকারী প্রতিদিন যদি আপনি এক কোয়া রসুন এবং কাঁচা আদা খান তাহলে এটা আপনার লিভার পরিষ্কার করতে অনেক সাহায্য করে এবং দেহের বজ্র পদার্থ বের করতেও রসুন এবং আদা অনেক ভূমিকা পালন করে তাই লিভার পরিষ্কারের জন্য প্রতিদিন রসুন এবং আদা খাওয়া অভ্যাস করুন
3. হলুদঃ অন্যতম উপকারী একটি ভেষদ ওষুধ হলো হলুদ এতে থাকে কারকিউমিন নামক উপাদান যা আমাদের লিভারের জন্য অনেক উপকারী এই কারকিউমিনলিভারের কোষের স্বাস্থ্য ভালো রাখে লিভারকে ক্ষতি হতে থেকে সুরক্ষা করে তাই খাবারের তালিকায় হলুদ রাখুনের এটি লিভারের জন্য অনেক উপকারী
4. অলিভ অয়েলঃ লিভারের জন্য অন্যতম উপকারি খাবার হল অলিভ অয়েল এটি শরীরের বিভিন্ন সমস্যা সমাধান করতে পারে শরীরের ইনজামাইন বাড়িয়ে দিতে পারে ফলে লিভার থেকে দূষিত পদার্থবিদ হয়ে যায় তাই রান্নায় প্রতিদিন অলিভ অয়েল তেল ব্যবহার করুন।

লিভারের জন্য ক্ষতিকারক খাবার-লিভার সুস্থ রাখার উপায়

লিভার আমাদের দেহের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসাবে কাজ করে লিভার আমাদের দেহের রক্ত সংস্করণ করতে সাহায্য করে তাই লিভার ক্ষতিগ্রস্ত হলে আমাদের দেহের নানান সমস্যা দেখা দেয়  তাই লিভারের জন্য ক্ষতিকারক কিছু খাবার নিয়ে আলোচনা করা হলো
1. মদ পানঃ মদ পান লিভারের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর অত্যাধিক মতবানের ফলে প্রদাহ ফাইব্রোসিস এবং লিভারের কোষগুলো মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে তাছাড়া মাত্র মদ খেলে লিভার সিরোসিস হতে পারে তাই লিভার সুস্থ রাখতে মদ পানি এড়িয়ে চলাই ভালো।
2. ফাস্টফুডঃ ফাস্টফুড পছন্দ করে না এমন মানুষ খুব কমই আছে সামনে পিক যা বার্গার চিকেন পেলে লোভ সামলাতে পারে না এমন লোক অনেকে আছে কিন্তু এসব খাবার সহজে হজম হয় না যা আমাদের লিভারের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর তাই লিভার ভালো রাখতে যতদূর সম্ভব ফাস্টফুড এড়িয়ে চলাই ভালো এতে আমাদের লিভার ভালো থাকবে
3. তেলেভাজা ও মসলা জাতীয় খাবারঃ তেলেভাজা এবং মসলা জাতীয় খাবারের অনেক বেশি ফ্যাট থাকে যা আমাদের লিভারের জন্য অত্যন্ত খারাপ। নিয়মিত তেলেভাজা বা মসলা জাতীয় জিনিস খেলে ফ্যাটি লিভার সহ আমাদের দেহের নানান সমস্যা দেখা দিতে পারে তাই লিভার ভালো রাখতে আমরা যতটা পারি তেলে ভাজা জিনিস খাওয়া থেকে বিরত থাকবো।
4. ঘি মাখনঃ ঘি মাখন খেতে অনেকে ভালোবাসে এই দুগ্ধজাত খাবার গুলো শরীরের জন্য তেমন কোনো উপকারী নয় এতে রয়েছে প্রচুর ফ্যাট যা লিভারের জন্য অনেক ক্ষতি করে তাই আমরা পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘি মাখন খেতে হবে ঘি মাখনের ফ্যাট লিভারের জন্য মারাত্মক প্রভাব ফেলে তাই যতদূর সম্ভব ঘি মাখন এড়িয়ে চলব এতে আমাদের লিভার ভালো থাকবে
5. কোল্ডিংঃ কোল্ডিং আমাদের দেহের জন্য অত্যন্ত খারাপ পেতে থাকে সুইটনয়াল এই উপাদান কিন্তু শরীরের জন্য এবং লিভারের জন্য অনেক ক্ষতি করো তাই এসব পানি যতদূর পারা যায় এড়িয়ে চলতে হবে এতে আমাদের লিভার অনেকটা ভালো থাকবে

লিভারের জন্য ভালো খাবার -লিভার সুস্থ রাখার উপায়

লিভার আমাদের দেহের একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ তাই লিভারকে ভালো রাখা আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ তাই লিপাকে ভালো রাখতে হলে আমাদের ভালো খাবার খেতে হবে এই ভালো খাবার খেলে আমাদের লিভার ভালো থাকবে। তাই লিভারকে ভালো রাখার জন্য কিছু খাবার নিয়ে আলোচনা করা হলো
1.  বিট রুটঃ ন্যাশনাল সেন্টার বায়োটেকনোলজি ইনফর্মেশন এর গবেষণায় বলা হয়েছে বিট রুট খাওয়া লিভারের জন্য উপকারী যারা সুগার রোগে তারা বিট এড়িয়ে যান কারণ বিট স্বাদে অনেকটা মিষ্টি তারপর মাটির তলায় হয় বিটের মধ্যে থাকে বিশেষ পুষ্টি যা লিভারের জন্য অনেক ভালো তাই নিয়মিত এটি খেলে লিভার অনেকটা সুস্থ থাকে
2. শাক-সবজিঃ শাক সবজির মধ্যে পালং শাক আমাদের শরীরের জন্য খুব ভালো এটা আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং লিভার সুস্থ রাখে তাই লিভারকে সুস্থ রাখতে আমাদের নিয়মিত শাকসবজি খেতে হবে এতে লিভার অনেকটা সুস্থ থাকবে প্রচুর পরিমাণ এন্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে যা শরীরের ক্ষতিকারক বজ্র পদার্থ বের করতে সাহায্য করে তাই আমাদের নিয়মিত শাকসবজি খেতে হবে
3. পানিঃ পানি আমাদের লিভারের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান নিয়মিত পানি খেলে আমাদের শরীরের অনেক বজ্র পদার্থ বের করতে সাহায্য করে এবং লিভার কে সতেজ রাখতে সাহায্য করে তাই লিভার কে সুস্থ রাখতে আমাদের নিয়মিত পানি পান করতে হবে এতে লিভার অনেক সুস্থ থাকবে তাই দিনে ও অন্তত চার থেকে পাঁচ লিটার পানি পান করা প্রয়োজন আমাদের জন্য
4. ফলমূলঃ ফলমূল আমাদের দেহের জন্য এবং লিভারের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি খাদ্য এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন আইরন যা আমাদের লিভারের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তাই আমাদের লিভার ভালো রাখতে হলে নিয়মিত ফলমূল খেতে হবে এটা আমাদের লিভার অনেকটা ভালো থাকবে
5. মধুঃ মধু অত্যন্ত একটি পুষ্টিকর উপাদান যা আমাদের লিভারকে সচল রাখতে সাহায্য করে তাই নিয়মিত মধু পান করতে হবে এতে আমাদের লিভার অনেকটা ভালো থাকবে। মধুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন যা আমাদের লিভারের জন্য খুব উপকার

লিভার রোগের লক্ষণ-লিভার সুস্থ রাখার উপায়

লিভার রোগ আমাদের দেশে একটি কমন হয়ে দাঁড়িয়েছে এই রোগে আমরা অনেকে ঘুরছি কিন্তু অনেকে জানিনা যে এই রোগের কি কি লক্ষণ দেখা দেয় তো চলুন এই রোগের কিছু লক্ষণ নিয়ে আলোচনা করা যায়
1. লিভার রোগে আক্রান্ত হলে প্রথমে আপনার যেটি পরিবর্তন আসবে সেটি হল দেহের গঠন আপনি অনেক মোটা হয়ে যাবে কারণ লিভার রোগে আক্রান্ত হলে লিভার যখন চর্বি বা ভদ্র পদার্থ নিষ্কাশন করতে পারবে না তখন আপনি স্বাস্থ্য অনেক মোটা হয়ে যাবে
2. লিভার রোগের আরও লক্ষণ হলো আপনার শরীরের এনার্জি লেভেল অনেকটা কমে আসবে এই লিভার রোগে আক্রান্ত হলে আপনার অলসতার অনেকটা বেড়ে যাবে
3. লিভার রোগে আক্রান্ত হলে আপনার বমি বমি ভাব হবে এমনকি বমি হবে অনেক সময় লিভার রোগে আক্রান্ত হলে পেট ফুলে যাবে
4. লিভার রোগে আক্রান্ত হলে মাথা ব্যাথা থেকে শুরু করে ডিপ্রেশন মন খারাপ আরো নানান রকম সমস্যা হবে লিভার রোগে আক্রান্ত হল
5. লিভার রোগে আক্রান্ত হলে আপনার ওজন অনেকটাই কমে আসবে কিংবা বেড়ে যাবে

লিভার রোগে ঝুঁকিতে আছে যারা-লিভার সুস্থ রাখার উপায়-লিভার ভালো রাখার নিয়ম

লিভার আমাদের দেশে এখন একটি কমন রোগ হয়ে দাঁড়িয়ে ছে তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি ছবিতে আছে যারা তাদের নিয়ে কিছু আলোচনা করা হতো এই লিভারকে ভালো রাখতে হলে আমাদের যেসব রোগ নিয়ন্ত্রণ করতে হবে
1. ডায়াবেটিসঃ ডায়াবেটিস রোগীদের লিভারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি তাই আমাদের ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করতে হবে তা না হলে আমাদের লিভারের নানান সমস্যা হতে পারে
2. শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রা যাদের বেশিঃ যাদের শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রা অনেক বেশি থাকে তাদের লিভার রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেকটা বেশি থাকে তাই আমাদের কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে হবে
3. উচ্চ রক্তচাপঃ যাদের উচ্চ রক্তচাপ আছে তাদের লিভার রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেকটা বেশি থাকে কারণ উচ্চ রক্তচাপ আমাদের দেহের অনেক খারাপ প্রভাব ফেলে তাই আমাদের নিয়মিত উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে হবে তা না হলে লিভার রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যাবে
4. আরামদায়ক জীবনঃ যারা আরামদায়ক জীবন যাপন করে তাদের লিভার রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝগড়া অনেকটা বেশি থাকে তাই আমাদের নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে এতে লিভারের বা আমাদের দেহের ওজন বা চর্বি কমাতে সাহায্য করে তাই আমাদের লিভার কে ভালো রাখতে হলে নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে
5. অনিয়ন্তিত খাবারঃ অনেকের অভ্যাস আছে নিয়ম না মেনে অনিয়মিতভাবে খাবার খায় এতে আমাদের লিভারের জন্য অনেক খারাপ প্রভাব ফেলে তাই যতদূর সম্ভব আমাদের নিয়ম মেনে খাবার খেতে হবে এটা লিভার ভালো থাকবে

লিভার ভালো রাখার ব্যায়াম-লিভার সুস্থ রাখার উপাই

লিভার আমাদের খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ তাই লিভার কে ভালো রাখতে হলে আমাদের নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে লিভার কে ভালো রাখার জন্য ব্যায়ামে কোন বিকল্প নেই কারণ ব্যায়াম করলে আমাদের শরীরে বজ্র পদার্থ বের হয়ে যায় যাতে লিভার ভালো থাকে তাই লিভার ভালো রাখার জন্য কিছু ব্যাঙ নিয়ে আলোচনা করা হলো
1. লিভারকে ভালো রাখতে হলে আমাদের প্রতিদিন অন্তত আধা ঘন্টা হাঁটতে হবে এতে আমাদের শরীরের ঘাম ঝরবে তার সাথে শরীরের বজ্র পদার্থ বের হয়ে যাবে
2. লিভার ভালো রাখতে হলে আমাদের নিয়মিত সাঁতার কাটতে হবে এই সাঁতার কাটার ফলে আমাদের দেহের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ চলাচল করবে এবং রক্ত সংযোজন বেড়ে যাবে এতে আমাদের লিভার অনেকটা ভালো থাকবে
3. সাইকেল চালাতে হবে লিভারকে ভালো রাখতে হলে আমাদের নিয়মিত সাইকেল চালাতে হবে এতে আমাদের লিভার অনেকটা ভালো থাকবে আমাদের নিয়মিত সাইকেল চালানোর ফলে দেহ থেকে অনেক ক্যালোরি খরচ হবে যা আমাদের লিভারের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ

শেষ কথাঃলিভার কি- লিভার সুস্থ রাখার উপায়

আমরা এই আর্টিকেলের মাধ্যমে লিভার সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে লিভার কি লিভার কিভাবে কাজ করে লিভারের জন্য কোনটি ভালো লিভারের জন্য কোনটি খারাপ লিভারের রোগের খাদ্য তালিকা লিভার রোগের লক্ষণ আরো লিভার সম্পর্কে নানা আলোচনা করা হয়েছে। এই আর্টিকেলটি যদি আপনাদের ভালো লাগে তাহলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করুন এবং আরো কিছু জানার থাকলে তা কমেন্ট করে জানিয়ে দিন

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ৪